পাত্রীর অন্তর্বাস এবং কোমরের মাপ জানতে চেয়ে বিজ্ঞাপন, তুমুল বিতর্ক

অন্তর্বাস

পাত্রীর অন্তর্বাস এবং কোমরের মাপ জানতে চেয়ে বিজ্ঞাপন, তুমুল বিতর্ক। এই বিষয়টি নজরে এসেছে ওই বিয়ের বিজ্ঞাপনী সংস্থার। তারা বিষয়টি খতিয়ে দেখবে বলে জানিয়েছে। সমন্ধ দেখতে গিয়ে বিভিন্ন সময় পাত্রীদের বিভিন্ন রকমের প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয়। যা তাঁদের জন্য অস্বস্তির। আগে পাত্রী দেখতে গেলে মেয়েকে হাঁটে কেমন করে, তা দেখা হত বলে জানা যায়। এই ঘটনা তারই পরিবর্তিত রূপ বলে মনে করছেন অনেকে।

 

আজকাল বিজ্ঞাপন দিয়ে পাত্রপাত্রী খোঁজা নতুন কোনও ব্যাপার না। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে অনলাইন ব্যবস্থা। ওয়েবসাইট, অ্যাপ। ফলে ক্ষেত্রটি আরও প্রসারিত হয়েছে। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রকম দাবি-দাওয়া নিয়ে বিতর্ক হয়। এর আগে ছিলেন ঘটক। তবে এখন বিজ্ঞাপন দিয়ে পাত্রপাত্রী খোঁজার কাজের পরিধি আরও বড় হয়েছে। তবে নিজের জীবনসঙ্গীনীর ব্যাপারে এই যুবক যে দাবি করেছেন, তা তুমুল বিতর্ক তৈরি হয়েছে। এই বিজ্ঞাপনে তিনি জানতে চেয়েছেন, অর্থাৎ উল্লেখ করেছেন মেয়ের বয়স হওয়া দরকার ১৮ থেকে ২৪ বছরের মধ্যে। উচ্চতা ৫ ফুট ২ ইঞ্চি থেকে ৫ ফুট ৬ ইঞ্চি-র মধ্যে থাকতে হবে। সারমেয় পছন্দ করেন এবং সব সময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে।

 

আর ও পড়ুন     জঙ্গল রাজ চলছে ত্রিপুরায়, বললেন অভিষেক

 

এমনই পাত্রী পছন্দ ওই যুবকের। এই টুকু ঠিক ছিল।  কোনও অসুবিধা ছিল না।  কিন্তু বিতর্ক শুরু হল তাঁর আরও কয়েকটি শব্দ ব্যবহারে। যার জেরে প্রবল সমালোচনার মুখোমুখি হতে হচ্ছে। কারন তিনি ওই বিজ্ঞাপনে জানতে চেয়েছেন, পাত্রীর অন্তর্বাস এবং কোমরের মাপ কত হবে।

 

আর তার জেরেই শুরু হয় তুমুল বিতর্ক। অনেকে তাঁর এ হেন আচরণের নিন্দা করেছেন। এই কথা জানাজানি হতেই নেটদুনিয়ায় তুমুল তোলপাড় শুরু হয়ে যায়। কী করে একজন মানুষ এমন কথা জানতে চাইতে পারেন, স্ত্রীর অন্তর্বাসের মাপ বিজ্ঞাপনে উল্লেখ করতে পারেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।