এবার টাকা চাওয়ার অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে

অভিযোগ
অভিযোগ
1 184 এবার টাকা চাওয়ার অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে
ছবি সংগ্রহে সাইন টিভি

 

এবার টাকা চাওয়ার অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে । আবাস যোজনার ঘরে টাকা পাইয়ে দিতে কাটমানি চাওয়ার অভিযোগ উঠল পঞ্চায়েতের বিজেপি সদস্যের বিরুদ্ধে। এমনই অভিযোগ তুললেন বৃদ্ধ দম্পতি। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে,বৃদ্বার নাম গয়া দাস। দম্পতির বাড়ি মালদহের চাঁচলের আমলাপাড়ায়।

 

অভিযোগ, ওই এলাকাতেই বাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের বিজেপি সদস্যার। কিন্তু বৃদ্ধ দম্পতির দিকে নজর দেননা। আর কতটা অসহায় হলে মিলবে সরকারি সাহায্য, সেই প্রশ্ন তুলেছেন বৃদ্ধা সরকারি সাহায্য না পেলে তাদের যে মৃত্যু ছাড়া গতি নেই বলেই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

 

কেননা তালিকায় নাম থাকলেও ২০ হাজার টাকা কাটমানি দিতে না পারায় বছর পেরিয়ে গেলেও তার ঘর মেলেনি। এবার ফের নতুন করে তালিকায় নাম এসেছে বলে জানতে পারেন। কিন্তু ফের টাকা চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু দাবি মতো টাকা দিতে না পারায় ঘর মিলছে না বলে অভিযোগ।

 

আর ও পড়ুন    দিদি ভবানীপুরে হেরে যাবে, শুভেন্দু কেন বললেন?

 

বারবার জানালেও মেলেনি বার্ধ্যক্য ভাতাটুকুও। রেশনের চালটুকু দিয়ে একবেলা নুন ভাত খেয়ে দিন কাটে দম্পতির।এনিয়ে রাজনৈতিক তরজা শুরু হয়েছে। গয়াদেবী বলেন, বেশিরভাগ দিন নুন দিয়ে ভাত খেয়ে থাকি। শরীরে না কুলোলেও অন্যের বাড়িতে কাজে যেতে হয়।

 

বৃষ্টি হলেই ঘরে জল পড়ে। ত্রিপল মুড়ে সারারাত জেগে বসে থাকি। বার্ধ্যক্য ভাতাটাও মেলেনি। আমার তো একটা টাকাও দেওয়ার ক্ষমতা নেই। এভাবে বেঁচে থেকে কি লাভ। সরকারি সাহায্য না পেলে মরা ছাড়া পথ নেই। বিজেপির স্থানীয় সদস্য পম্পা চৌধুরী বলেন, আবাস যোজনার তালিকায় নাম থাকলেও উনি পঞ্চায়েতে নথি জমা দেননি বলে ঘর পাননি।

 

এখন বদনাম করতে কাটমানি চাওয়ার অভিযোগ তোলা হচ্ছে। পম্পা বলেন, বাড়ি বসে তো কেউ কিছু করে দিবে না। বার্ধ্যক্য ভাতা বা অন্যান্য সুবিধার জন্য আমার সঙ্গে দেখা করতে হবে, পঞ্চায়েতে যেতে হবে। চাঁচলের বিধায়ক নীহাররঞ্জন ঘোষ বলেন, সরকারি সাহায্য না পেয়ে কেউ মৃত্যুর কথা ভাবছেন এটা ভীষন লজ্জার। আমার কাছেও অভিযোগ এসেছে।

 

পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য অমিতেশ পাণ্ডে ওদের ঘরের ব্যবস্থা করে দিয়েছিল। কিন্তু মহিলাটি তৃণমূলকে ভোট দিয়েছে। তাই বিজেপির স্থানীয় সদস্যা ওকে ঘর দিচ্ছেন না! টাকা চাইছেন। আমি বিডিওকে বিষয়টি জানিয়েছি। সব খতিয়ে দেখে বৃদ্ধার সঙ্গে বঞ্চনা হলে এফআইআর করার কথা বলেছি। চাঁচল ১ ব্লক বিডিও সমিরন ভট্টাচার্য জানান অভিযোগ জমা পড়েছে, পুরো বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখা হবে।