লাদাখ সীমান্তে ফের উত্তেজনা, চীন সীমান্তে উড়ছে জেট ফাইটার

উত্তেজনা

লাদাখ সীমান্তে ফের উত্তেজনা, চীন সীমান্তে উড়ছে জেট ফাইটার। ভারত চীনের মধ্যে   লাদাখ সীমান্তে ফের উত্তেজনা। জানা গিয়েছে,  লাদাখে চীন  শক্তি বাড়াতে শুরু করেছে। প্যাংগং সো হ্রদ থেকে মাত্র ১০০ কিলোমিটার দূরে নাগরি গুনসা এয়ারবেসে শক্তি বাড়াতে শুরু করে দিয়েছে বেজিং। হঠাৎ করে লাদাখ সীমান্তে চীনা  ফৌজের  এই তৎপরতায় জল্পনা বাড়িয়েছে।

 

সুত্রের খবর,  সেখানে ইউএভি মোতায়েন করা হয়েছে। একের পর এক অত্যাধুনিক ফাইটার জেট মজুত করছে চিনা ফৌজ। স্বাভাবিকভাবেই  লাদাখ সীমান্তে এয়ারবেসে বেজিংয়ের এই শক্তি বৃদ্ধি কপালে ভাঁজ ফেলেছে ভারতীয় সেনার। প্রতিমুহূর্তে নজরদারি চালিয়ে যাচ্ছেন সীমান্তের প্রহরীরা।

 

কয়েকদিন আগেই লাদাখ সীমান্তে অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালিয়েছিল চিনা ফৌজ।  ভারতীয় সেনা দক্ষতার সঙ্গে প্রতিরোধ গড়ে তোলে। তারপর থেকে বেশ উত্তেজনা প্রবণ হয়ে রয়েছে লাদাখ সীমান্ত। তারপরে নতুন করে লাদাখ সীমান্তে চীনের শক্তিবৃদ্ধি ভাবিয়ে তুলেছে ভারতীয় সেনাকে।

 

আর ও পড়ুন      হিন্দু বিবাহ আইনের কথা স্মরণ করে দিয়ে শোভনকে হুঁশিয়ারি রত্নার 

 

এদিকে,  গত ১০ অক্টোবর লাদাখ সীমান্ত নিয়ে বৈঠকে বসেছিল দুই দেশের সেনা। কিন্তু সেনা পর্যায়ের বৈঠকেও কোনও সমাধান সূত্র মেলেনি। লাদাখ সীমান্ত থেকে সেনা সরানোর যে প্রস্তাব ভারত দিয়েছিল তাতে রাজি হয়নি বেজিং। যার জন্য এক প্রকার ব্যর্থই হয়েছিল চিনের সঙ্গে ভারতের বৈঠক।

 

উল্লেখ্য,  ভারত চীনের মধ্যে   লাদাখ সীমান্তে ফের উত্তেজনা। জানা গিয়েছে,  লাদাখে চীন  শক্তি বাড়াতে শুরু করেছে। প্যাংগং সো হ্রদ থেকে মাত্র ১০০ কিলোমিটার দূরে নাগরি গুনসা এয়ারবেসে শক্তি বাড়াতে শুরু করে দিয়েছে বেজিং। হঠাৎ করে লাদাখ সীমান্তে চীনা  ফৌজের  এই তৎপরতায় জল্পনা বাড়িয়েছে।  সুত্রের খবর,  সেখানে ইউএভি মোতায়েন করা হয়েছে।

 

একের পর এক অত্যাধুনিক ফাইটার জেট মজুত করছে চিনা ফৌজ। স্বাভাবিকভাবেই  লাদাখ সীমান্তে এয়ারবেসে বেজিংয়ের এই শক্তি বৃদ্ধি কপালে ভাঁজ ফেলেছে ভারতীয় সেনার। প্রতিমুহূর্তে নজরদারি চালিয়ে যাচ্ছেন সীমান্তের প্রহরীরা।  কয়েকদিন আগেই লাদাখ সীমান্তে অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালিয়েছিল চিনা ফৌজ।  ভারতীয় সেনা দক্ষতার সঙ্গে প্রতিরোধ গড়ে তোলে।

 

তারপর থেকে বেশ উত্তেজনা প্রবণ হয়ে রয়েছে লাদাখ সীমান্ত। তারপরে নতুন করে লাদাখ সীমান্তে চীনের শক্তিবৃদ্ধি ভাবিয়ে তুলেছে ভারতীয় সেনাকে।  এদিকে,  গত ১০ অক্টোবর লাদাখ সীমান্ত নিয়ে বৈঠকে বসেছিল দুই দেশের সেনা। কিন্তু সেনা পর্যায়ের বৈঠকেও কোনও সমাধান সূত্র মেলেনি। লাদাখ সীমান্ত থেকে সেনা সরানোর যে প্রস্তাব ভারত দিয়েছিল তাতে রাজি হয়নি বেজিং। যার জন্য এক প্রকার ব্যর্থই হয়েছিল চিনের সঙ্গে ভারতের বৈঠক।