ওয়েবসাইট হ্যাকের জেরে অ্যাাডমিট ছাড়াই পরীক্ষা দিচ্ছে ছাত্রছাত্রীরা 

ওয়েবসাইট

ওয়েবসাইট হ্যাকের জেরে অ্যাাডমিট ছাড়াই পরীক্ষা দিচ্ছে ছাত্রছাত্রীরা।  ওয়েবসাইট হ্যাকের জের,এ্যাডমিট ছাড়াi পরীক্ষায় বসেছে  ছাত্রছাত্রীরা। দ্বিতীয়  সেমিস্টার ও চতুর্থ সেমিস্টারের ছাত্র ছাত্রীরা অনলাইনে ফর্ম ফিলাপ করেও পায় নি অ্যাডমিট কার্ড।

 

এমনকি অনলাইনেও পাওয়া যাচ্ছে না অ্যাঠমিট কার্ড। বাধ্য হয়ে প্রথম সেমিস্টারের অ্যাডমিট কার্ডের নম্বর দিয়ে অনলাইনে পরীক্ষা দিচ্ছেন ছাত্র ছাত্রীরা। গৌড়বঙ্গের কলেজগুলিতে সেকেন্ড সিমেস্টারের অভ্যন্তরীণ মূল্যায়নের পরীক্ষা শুরু হয়ে গেলেও  পরীক্ষার্থীরা  অ‍্যাডমিট  কার্ড  পাননি বলে অভিযোগ উঠেছে।

 

বিশ্ববিদ্যালয়ের পোর্টাল থেকে অ‍্যাডমিট কার্ড ডাউনলোড করা যাচ্ছে না। যদিও বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানানো হয়েছে, সম্প্রতি চার ছাত্রীর ফরম ফিলাপে তাদের প্রোফাইলে হানা দিয়ে অশ্লীল ইঙ্গিত পূর্ণ কথাবার্তা লেখা হয়েছিল তার পরিপ্রেক্ষিতে সাইবার ক্রাইম দপ্তরে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অভিযোগ জানায়। তারই পরিপ্রেক্ষিতে সাইবার অডিট চলছে। যার কারণে পোর্টালের কাজ করা যাচ্ছে না।

 

আর ও  পড়ুন    হলুদ শাড়িতে অনুরাগীদের নজর কাড়লেন বলিউডের ‘মস্তানি’ এই অভিনেত্রী

 

গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্থ পঁচিশটি কলেজে সেকেন্ড সেমিস্টারের অভ্যন্তরীণ মূল্যায়নের পরীক্ষা কিছু কলেজে শুরু হয়েছে।আবার কিছু কলেজে শুরু হবে। আগামী কুড়ি সেপ্টেম্বরের  মধ্যে এই পরীক্ষা শেষ করার কথা। অথচ পরীক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় অ‍্যাডমিট কার্ড ডাউনলোড করতে পারছেন না পরীক্ষার্থীরা এমনটাই অভিযোগ।সমস্যার কথা মানছেন কয়েকটি কলেজের অধ্যক্ষরা।

 

গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের কন্ট্রোলার বিশ্বরূপ সরকার জানান, সাইবার হ্যাকের কারণে এমন বিপত্তি। শীঘ্রই সমস্যা সমাধানের চেষ্টা চলছে। নতুন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিস্টেম তৈরীর কাজ চলছে। পুরো বিষয়টি মালদহ সাইবার পুলিশ থানাতে অভিযোগ করা হয়েছে। পুলিশ তদন্ত করছে। সাইবার হ্যাকে একটি চক্র জড়িয়ে থাকার বিষয়টিও তিনি উড়িয়ে দিচ্ছেন না।

 

তবে বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে,  যে সংস্থা এই অ্যাডমিট তৈরীর কাজে যুক্ত তাদের টাকা পেমেন্ট না হওয়ায় সংস্থাটি অ্যাডমিট তৈরীর কাজ করতে অস্বীকার করে। যার ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীদের অ্যাডমিট তৈরী হয় নি। মালদহ জেলা পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে।বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখা হচ্ছে।