কাঞ্চন নদীর জলের স্রোতে ভেসে গেল অস্থায়ী রাস্তা, চরম দুর্ভোগে পাঁচটি অঞ্চলের হাজার হাজার মানুষ।

0
4

নিজস্ব সংবাদদাতা, উত্তর দিনাজপুর:- নদীর স্রোতের জলে ভেসে গেল অস্থায়ী রাস্তা, চরম দুর্ভোগে পাঁচটি অঞ্চলের হাজার হাজার মানুষ। ঘটনার ২৪ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও দেখা মেলেনি স্থানীয় পঞ্চায়েত বা জেলা প্রশাসনের আধিকারিকদের। ক্ষোভে ফেটে পড়লেন বাসিন্দারা। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জ ব্লকের রামপুর গ্রামপঞ্চায়েতের মহারাজা এলাকায়। প্রশাসনের চরম উদাসীনতায় বিক্ষুদ্ধ গ্রামের বাসিন্দারা নিজেরাই চাঁদা তুলে অর্থ সংগ্রহ করে স্বেচ্ছাশ্রম দিয়ে নদীর উপর অস্থায়ী বাঁশের সাঁকো নির্মানের কাজ শুরু করলেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার দুপুর নাগাদ কাঞ্চন নদীর জলের স্রোতে আচমকাই ভেসে চলে যায় রায়গঞ্জ ব্লকের মহারাজা এলাকায় একটি অস্থায়ী রাস্তা। রাস্তাটি সম্পূর্ণ ভেঙে নদীর জল প্রবল বেগে ঢুকতে শুরু করে গ্রামগুলিতে। এই অস্থায়ী রাস্তা জলের তোড়ে ভেঙে যাওয়ায় এলাকার বাসিন্দাদের ২৬ কিলোমিটার দীর্ঘ পথ ঘুরে আসতে হচ্ছে ব্লক সদর রায়গঞ্জ শহরে। জলের তোড়ে রাস্তা ভেঙে চলে যাওয়ার প্রায় ২৪ ঘন্টা পার হয়ে গেলেও স্থানীয় রামপুর গ্রামপঞ্চায়েতের প্রধান কিংবা রায়গঞ্জ ব্লক বা জেলা প্রশাসনের কোনও আধিকারিক ঘটনাস্থলে না আসায় ক্ষোভে ফেটে পড়েন হাজার হাজার গ্রামবাসী। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, দীর্ঘ সময় পার হয়ে যাওয়ার পর কোনওরকম প্রশাসনিক উদ্যোগ বা ব্যাবস্থা গ্রহন না করায় পাঁচটি অঞ্চলের সাথে রায়গঞ্জ ব্লক সদরের বিচ্ছিন্ন যোগাযোগ অস্থায়ীভাবে গড়ে তুলতে গ্রামবাসীরা নিজেরাই উদ্যোগ নিলেন। গ্রামের বাসিন্দারা প্রশাসনের উপর আস্থা হারিয়ে নিজেরাই চাঁদা তুলে অর্থ সংগ্রহ করে নদীর উপর অস্থায়ী বাঁশের সাঁকো নির্মান শুরু করেছেন।