কলকাতা ও সংলগ্ন জেলাগুলিতে বাড়ছে করোনার প্রকোপ

জেলাগুলিতে

কলকাতা ও কলকাতা সংলগ্ন জেলাগুলিতে বাড়ছে করোনার প্রকোপ ।  পুজোর সময়ে করোনার উদ্বেগ বাড়ছে শুধু কলকাতা ও সংলগ্ন জেলায়। কলকাতায় এক লাফে দৈনিক সংক্রমণ বেড়ে ১৬০ ছাড়িয়ে গিয়েছে শনিবার। তালমিলিয়ে বাড়ছে দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি ও নদিয়ার করোনা গ্রাফ। কলকাতা-উত্তর ২৪ পরগনায় দৈনিক সংক্রমণ একশোর উপরে। তবে স্বস্তির ছবিও রয়েছে। সাত জেলায় ১০-র নিচে সংক্রমণ। আবার ২০ নিচে সংক্রমণ ১৫ জেলায়। ৭ জেলায় সক্রিয়ের সংখ্যা ১০০-র নিচে নেমে গিয়েছে।

 

কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনায় করোনা সোমবার বাংলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬০৬। এদিন কলকাতায় ১৪৭ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এখন পর্যন্ত কলকাতায় মৃত্যু হয়েছে ৫০৯২ জনের। এদিন মৃত্যু হয়েছে ১ জনের। এখন পর্যন্ত করোনা মুক্ত হয়েছেন মোট ৩১১৫৫৫ জন। এখনও সক্রিয় করোনা আক্রান্ত ১৫১৬ জন। এদিন কলকাতায় করোনা সংক্রমণ মুক্ত হয়েছেন ১১৬ জন।

 

উত্তর ২৪ পরগনায় করোনা পরিসংখ্যান উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত ৩২৬৬৪৭ জন। এদিন আক্রান্ত হয়েছেন ১০৯ জন। মৃত্যু হয়েছে মোট ৪৭৬২ জনের। এদিন মৃত্যু হয়েছে ২ জনের। এখন পর্যন্ত করোনা মুক্ত হয়েছেন মোট ৩২০৬১৭ জন। এখনও সক্রিয় করোনা আক্রান্ত ১২৬৮ জন। এদিন করোনা সংক্রমণ মুক্ত হয়েছেন ৯৮ জন।

 

আর ও  পড়ুন  পুজোয় বাড়িতে তৈরি করুন লোভনীয় ছানার কোফতা কালিয়া 

 

দক্ষিণ ২৪ পরগনা ও হাওড়া-হুগলি দক্ষিণ ২৪ পরগনা আক্রান্তের নিরিখে এখন তিন নম্বরে। দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৪২ জন বেড়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা হয়েছে ৯৯৬৯৯ জন। হাওড়ায় আক্রান্ত ৯৭৪৭৪ জন। এদিন আক্রান্ত হয়েছেন ৪৮ জন। হুগলিতে ৩৪ জন বেড়ে আক্রান্ত ৮৪৯৩৮ জন।  আলিপুরদুয়ারে ৫ জন, কোচবিহারে ১১ জন, দার্জিলিংয়ে ১৭ জন, কালিম্পংয়ে ১ জন, জলপাইগুড়িতে ২০ জন, উত্তর দিনাজপুরে ১ জন, দক্ষিণ দিনাজপুরে ১১ জন, মালদহে ৫ জন, মুর্শিদাবাদে ৮ জন, নদিয়ায় ৪৩ জন, বীরভূমে ১৯ জন, পুরুলিয়ায় ১ জন, বাঁকুড়ায় ১৯ জন, ঝাড়গ্রামে ৯ জন, পশ্চিম মেদিনীপুরে ১৬ জন, পূর্ব মেদিনীপুরে ৮ জন, পূর্ব বর্ধমানে ২৪ জন, পশ্চিম বর্ধমানে ১০ জন আক্রান্ত হয়েছেন এদিন।

 

করোনার টিকাদান এদিন বাংলায় মোট করোনা টিকা দেওয়া হয়েছে ২ লক্ষ ২৬ হাজার ৬৭৩ জনকে। এঁদের মধ্যে প্রথম ডোজ নিয়েছেন ১ লক্ষ ৯২ হাজার ৭৪২ জন। আর দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ৩৩ হাজার ৯৩১ জন। এখন পর্যন্ত মোট ভ্যাকসিনেশন হয়েছে ৬ কোটি ৪৩ লক্ষ ৮৬ হাজার ৫৫৬ জনের। প্রথম ডোজ ৪ কোটি ৬৪ লক্ষ ৩৫ হাজার ৩৩৬। আর দ্বিতীয় ডোজ ১ কোটি ৭৯ লক্ষ ৫১ হাজার ২২০।