দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ৩৮ হাজার ৭৯

নয়াদিল্লি, ১৭ জুলাই, ২০২১:দেশে কোভিড-১৯ টিকাকরণের সংখ্যা প্রায় ৪০ কোটির মাইলফলক ছুঁয়েছে। আজ সকাল ৭টা পর্যন্ত পাওয়া প্রাথমিক তথ্যানুযায়ী, সামগ্রিকভাবে ৩৯ কোটি ৯৬ লক্ষ ৯৫ হাজার ৮৭৯টি টিকার ডোজ দেওয়া হয়েছে। একইভাবে, গত ২৪ ঘণ্টায় ৪২ লক্ষ ১২ হাজার ৫৫৭টি টিকাকরণ হয়েছে।

%name দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ৩৮ হাজার ৭৯


দেশে এখনও পর্যন্ত মোট টিকাকরণের মধ্যে :
স্বাস্থ্য কর্মীরা প্রথম ডোজ পেয়েছেন – ১,০২,৬৬,০৭৪; দ্বিতীয় ডোজ – ৭৫,১৪,৮৯২
করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে অগ্রভাগে থাকা কর্মীরা প্রথম ডোজ পেয়েছেন – ১,৭৭,৭৯,৯১৩; দ্বিতীয় ডোজ – ১,০২,৬২,৯৫৬৩
১৮-৪৪ বছর বয়সীদের মধ্যে প্রথম ডোজ পেয়েছেন – ১১,১৮,২০,৭০৩; দ্বিতীয় ডোজ – ৪৬,১১,৯৯৭
৪৫-৫৯ বছর বয়সীদের মধ্যে প্রথম ডোজ পেয়েছেন – ৯,৫৯,৩০,০৩০; দ্বিতীয় ডোজ – ২,৭৯,৮৯,৫১৩
ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তিদের মধ্যে প্রথম ডোজ পেয়েছেন – ৭,১৮,৬৮,৫০৬; দ্বিতীয় ডোজ – ৩,০৬,৫১,২৯৮।
উল্লেখ করা যেতে পারে, সারা দেশে গত ২১ জুন থেকে সর্বজনীন কোভিড-১৯ টিকাকরণের নতুন পর্যায়ের সূচনা হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকার সারা দেশে কোভিড-১৯ টিকাকরণে গতি ও পরিধি সম্প্রসারণে অঙ্গীকারবদ্ধ।
মহামারী শুরুর সময় থেকে আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ৩ কোটি ২ লক্ষ ২৭ হাজার ৭৯২ জন আরোগ্য লাভ করেছেন। দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৪৩ হাজার ৯১৬ জন। এর ফলে, সামগ্রিকভাবে সুস্থতার হার দাঁড়িয়েছে ৯৭.৩১ শতাংশ, যা লাগাতার বাড়ছে।
দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৮ হাজার ৭৯ জন। লাগাতার ২০ দিন দৈনিক-ভিত্তিতে আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ হাজারের নীচে রয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের পাশাপাশি রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির পাশাপাশি ধারাবাহিকভাবে সমন্বয়মূলক প্রয়াসের ফলে এই সাফল্য অর্জিত হয়েছে।
দেশে আজ সুস্পষ্টভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লক্ষ ২৪ হাজার ২৫, যা মোট আক্রান্তের কেবল ১.৩৬ শতাংশ।
দেশে নমুনা পরীক্ষার ক্ষমতা ও পরিকাঠামো অগ্রগতির ফলে গত ২৪ ঘণ্টায় মোট ১৯ লক্ষ ৯৮ হাজার ৭১৫টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর ফলে, সারা দেশে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা ৪৪ কোটি ২০ লক্ষ ২১ হাজার ৯৫৪।
সারা দেশে একদিকে যখন নমুনা পরীক্ষার হার লাগাতার বেড়ে চলেছে, অন্যদিকে তখন সাপ্তাহিক-ভিত্তিতে আক্রান্তের হার ক্রমাগত হ্রাস পাচ্ছে বলে লক্ষ্য করা গেছে। সাপ্তাহিক-ভিত্তিতে আক্রান্তের হার বর্তমানে ২.১০ শতাংশ। অন্যদিকে, আজ দৈনিক-ভিত্তিতে আক্রান্তের হার দাঁড়িয়েছে ১.৯১ শতাংশ। উল্লেখযোগ্য বিষয় হ’ল দৈনিক-ভিত্তিতে আক্রান্তের হার লাগাতার ২৬ দিন ৩ শতাংশের নীচে রয়েছে। একইভাবে, আক্রান্তের হারও গত ৪০ দিন ৫ শতাংশের নীচে নেমে এসেছে।