দোমোহনী রেল দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলেন রেলের উচ্চ পদস্থ আধিকারিকরা

দোমোহনী

দোমোহনী রেল দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলেন রেলের উচ্চ পদস্থ আধিকারিকরা। শনিবার দোমোহনী রেল দুর্ঘটনাস্থলে আসেন ভারতীয় রেলের উচ্চ পদস্থ আধিকারীকেরা। তারা সরেজমিনে সবকিছু খতিয়ে দেখেন।    এই মুহূর্তে চলছে পুনরায় রেল লাইন চালু করার তোড়জোড়। দুর্ঘটনার ফলে  উল্টে পরা কামরাগুলোকে ইতিমধ্যে অন্যত্র সরিয়ে ফেলেছে উদ্ধারকারী দলের সদস্যরা।

 

যদিও শনিবার সকালেও যুদ্ধকালীন তৎপরতা দেখা যায় দুর্ঘটনাস্থলে কাজ চলছে।  প্রায় হাজার খানেক মানুষ বিভিন্ন কাজে যুক্ত রয়েছেন।  যাতে দ্রুত এই পথ দিয়ে রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা চালু করা যায়  তারজন্য চলছে সমস্ত রকমের চেষ্টা।

 

এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার রাত থেকেই লাগাতার উদ্ধারকারী দল সহ নিরাপত্তা এজেন্সির কর্মীদের মনোবল বাড়াতে রীতিমতো শিবির করে কাজ করে চলেছে  রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘের ময়নাগুড়ি খণ্ডের সদসরা।
শনিবার দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করার পরে উচ্চপদস্থ রেল কর্তা জানান, যতো দ্রুত সম্ভব পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টা চলছে।

 

আর ও  পড়ুন  পিছিয়ে গেল রাজ্যে পুরভোট, ২২ জানুয়ারি নয়, হবে ১২ ফেব্রুয়ারি

 

উল্লেখ্য, শনিবার দোমোহনী রেল দুর্ঘটনাস্থলে আসেন ভারতীয় রেলের উচ্চ পদস্থ আধিকারীকেরা। তারা সরেজমিনে সবকিছু খতিয়ে দেখেন।    এই মুহূর্তে চলছে পুনরায় রেল লাইন চালু করার তোড়জোড়। দুর্ঘটনার ফলে  উল্টে পরা কামরাগুলোকে ইতিমধ্যে অন্যত্র সরিয়ে ফেলেছে উদ্ধারকারী দলের সদস্যরা। যদিও শনিবার সকালেও যুদ্ধকালীন তৎপরতা দেখা যায় দুর্ঘটনাস্থলে কাজ চলছে।  প্রায় হাজার খানেক মানুষ বিভিন্ন কাজে যুক্ত রয়েছেন।

 

যাতে দ্রুত এই পথ দিয়ে রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা চালু করা যায়  তারজন্য চলছে সমস্ত রকমের চেষ্টা।  এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার রাত থেকেই লাগাতার উদ্ধারকারী দল সহ নিরাপত্তা এজেন্সির কর্মীদের মনোবল বাড়াতে রীতিমতো শিবির করে কাজ করে চলেছে  রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘের ময়নাগুড়ি খণ্ডের সদসরা।
শনিবার দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করার পরে উচ্চপদস্থ রেল কর্তা জানান, যতো দ্রুত সম্ভব পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টা চলছে।