ধর্ষণের অপমানে আত্মঘাতী নাবালিকা

0
1

বীরভূম: টিউশন থেকে বাড়ি ফেরার পথে নবম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠলো পাড়ার এক যুবকের বিরুদ্ধে। ঘটনার পর ওই নাবালিকা ছাত্রী অপমানিত হয়ে কীটনাশক খেয়ে আত্মঘাতী হন। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার রাতে বীরভূমের মুরারই থানার অন্তর্গত মুর্শেদ পাড়া গ্রামে।

মৃত ওই নাবালিকার বাবার অভিযোগ, প্রতিদিন সন্ধ্যাবেলায় টিউশন পড়তে যেত তাদের মেয়ে। গতকাল অর্থাৎ শনিবার টিউশন করে বাড়ি ফেরার পথে উৎপল মন্ডল নামে এক যুবক তাকে ধর্ষণ করে। এরপর সে আমাদের কিছু বলেনি। কিন্তু পরে কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যা করে।

ওই নাবালিকার বাবা জানিয়েছেন, “গতকাল আমরা আমাদের মেয়ের কীটনাশক খাওয়ার কথা বুঝতে পেরে ওকে জিজ্ঞাসা করি কেন এমনটা করলো? তখন সে আমাদের পুরো ঘটনা বলে।”

ওই নাবালিকা কীটনাশক খাওয়ার কথা জানতে পেরে তার অভিভাবকরা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে মুরারই হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু সেখানেই তাঁর শারীরিক পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় তাকে রামপুরহাট মেডিকেল কলেজে স্থানান্তরিত করা হয়। কিন্তু রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজে ওই নাবালিকাকে আনা হলেও কিছুক্ষণের মধ্যেই তার মৃত্যু হয়।

ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে রবিবার অভিযুক্ত যুবকের বিরুদ্ধে মুরারই থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। অভিযোগ পাওয়ার পর মুরারই থানার পুলিশ অভিযুক্ত ওই যুবককে আটক করেছে।