ভারতীয় সেনা যে কোনও পরিস্থিতির জন্য তৈরি আছে, জানালেন নারভানে

নারভানে

ভারতীয় সেনা যে কোনও পরিস্থিতির জন্য তৈরি আছে, জানালেন নারভানে । ভারত চীন সীমান্তে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে উঠতে পারে। ভারতীয় সেনা যে কোনও পরিস্থিতির জন্য তৈরি আছে। আর শেষ অবধি জয়ী হবে ভারতীয় সেনাই। জানিয়ে দিয়েছেন ভারতীয় সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারাভানে। তাঁর অভিযোগ, চীন বিশাল সংখ্যক ফৌজ মোতায়েন করার জন্যই মূলত লাদাখ সেক্টরে উত্তেজনা তৈরি হয়েছিল।

 

নারাভানে জানান, ‘‌বর্তমানে লাদাখ সেক্টরে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর যে পরিস্থিতি আছে, সেজন্য পিপলস লিবারেশন আর্মি (পিএলএ) দায়ী। চীনই সীমান্তে বিশাল সংখ্যক ফৌজ মোতায়েন করেছে। সীমান্ত বরাবর বিভিন্ন পরিকাঠামো তৈরি করেছে। তারা সেখানেই থাকবে নাকি পিছিয়ে যাবে, তার উপর নজর রাখতে হবে।’‌

 

চীনের পদক্ষেপের উপর ভিত্তি করেই ভারত কৌশল ঠিক করবে বলে জানিয়েছেন তিনি। কিন্তু কীভাবে দু’‌দেশের সেনা পিছিয়ে যাওয়ার রাস্তা প্রশস্ত হবে? ভারতীয় সেনাপ্রধান জানান, ‘‌দু’‌দেশের বাহিনীর মধ্যে যখন ভরসা গড়ে উঠবে এবং উত্তেজনা কমবে, তখনই শুধুমাত্র লাদাখের বিভিন্ন সংঘাতপূর্ণ এলাকা থেকে সেনা প্রত্যাহারের পথ প্রশস্ত হতে পারে। যে কাজটা গত এক বছরে আংশিকভাবে হয়েছে।’‌

 

আর ও পড়ুন      কোভিড জয়ের পর ওমিক্রনকেও জয় করবো, বললেন মমতা

 

তাতে কিছুটা আশার আলো দেখা গেলেও বিপদ যে পুরো কেটে গিয়েছে, তা ভারতীয় সেনাপ্রধান মানতে চাননি। তিনি জানান, ‘‌এখনও বিপদ কিছু কমেনি। যতদিন না পুরোপুরিভাবে সেনা সরানো হচ্ছে, ততদিন বাহিনী মোতায়েন রাখতে প্রস্তুত আছে ভারতীয় সেনা। যে কোনও কিছুর জন্য তাঁর বাহিনী প্রস্তুত আছে।’‌ তাঁর কথায়, ‘গত এক বছরে পিছু হটে যাওয়া নিয়ে ইতিবাচক পদক্ষেপ করা হয়েছে।

 

আংশিকভাবে সেনা পিছু হটেছে। কিন্তু কোনওদিক থেকেই বিপদের আশঙ্কা কমেনি।’ আলোচনার মাধ্যমে আগামীদিনে পূর্ব লাদাখে উত্তেজনা প্রশমিত করা যাবে বলে আশাপ্রকাশ করেছেন সেনাপ্রধান। কিন্তু পূর্ব লাদাখে ফের উত্তেজনা বাড়লে ভারত প্রস্তুত আছে বলে জানিয়েছেন জেনারেল নারাভানে। তিনি বলেন, ‘‌প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠবে কিনা, তা বলা কঠিন। যুদ্ধ শেষ বিকল্প। আমাদের দিকে যা ছুঁড়ে দেওয়া হবে, সেজন্য তৈরি আছি।

 

উল্লেখ্য,ভারতীয় সেনা যে কোনও পরিস্থিতির জন্য তৈরি আছে, জানালেন নারভানে । ভারত চীন সীমান্তে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে উঠতে পারে। ভারতীয় সেনা যে কোনও পরিস্থিতির জন্য তৈরি আছে। আর শেষ অবধি জয়ী হবে ভারতীয় সেনাই। জানিয়ে দিয়েছেন ভারতীয় সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারাভানে। তাঁর অভিযোগ, চীন বিশাল সংখ্যক ফৌজ মোতায়েন করার জন্যই মূলত লাদাখ সেক্টরে উত্তেজনা তৈরি হয়েছিল।

 

নারাভানে জানান, ‘‌বর্তমানে লাদাখ সেক্টরে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর যে পরিস্থিতি আছে, সেজন্য পিপলস লিবারেশন আর্মি (পিএলএ) দায়ী। চীনই সীমান্তে বিশাল সংখ্যক ফৌজ মোতায়েন করেছে। সীমান্ত বরাবর বিভিন্ন পরিকাঠামো তৈরি করেছে। তারা সেখানেই থাকবে নাকি পিছিয়ে যাবে, তার উপর নজর রাখতে হবে।’‌