প্রাক্তন ন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন খোখো খেলোয়াড়ের মৃতদেহ উদ্ধার

প্রাক্তন
প্রাক্তন

প্রাক্তন ন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন খোখো খেলোয়াড়ের মৃতদেহ উদ্ধার। উত্তরপ্রদেশের বিজনৌর জেলার রেলওয়ে স্টেশনের কাছে একটি ব্যাগে প্রাক্তন ন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন খোখো খেলোয়াড়ের মৃতদেহ উদ্ধার হল। ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই এলাকায় চাঞ্চল্য তৈরি হয়ে যায়।

 

শুক্রবার দুপুরে ২৪ বছর বয়সী ওই যুবতী নিজের বাড়ি থেকে একটি কলেজের ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য বেরিয়েছিলেন। কিন্তু রাত হয়ে গেলেও বাড়ি ফেরেননি। পরিবারের লোকজন অনেকক্ষণ অপেক্ষা করেও তিনি বাড়ি না ফেরায় খোঁজখবর শুরু করে। সন্ধ্যার দিকে অবশ্য রেলওয়ে স্টেশন এর পিছনে গুদামের পাশে রাখা রেলওয়ে স্লিপারে একটি মেয়ের মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনা লোকমুখে শুনেছিলেন।

 

কিন্তু তারা ঘুণাক্ষরেও ভাবতে পারেননি ইন্টারভিউর জন্য বের হওয়া বাড়ির মেয়ে স্লিপার-এ শব হয়ে শুয়ে আছে। অন্যদিকে মেয়েটির মৃতদেহ উদ্ধারের পর পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ সনাক্ত করার চেষ্টা করে। দীর্ঘক্ষন চেষ্টার পর পরিচিত একজনের দ্বারা ওই খেলোয়াড়ের শনাক্ত হয়। যুবতীর বোন জানান, সকাল সাড়ে এগারোটা নাগাদ ঘর থেকে ইন্টারভিউর জন্য বেরিয়েছিলেন ওই যুবতী।

 

বিকেলের মধ্যে তাঁর ফিরে আসার কথা ছিল।সন্ধ্যা হয়ে গেলেও সে ফেরেনি। প্রথমে তেমন উদ্বেগ না হলেও রাত হয়ে যাওয়ার পর উদ্বেগ বাড়তে থাকে। এদিকে সন্ধ্যায় পাড়ার এক মহিলা স্টেশনের কাছ থেকে আসার সময় একটি মেয়েকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়।

 

আর ও পড়ুন    দীঘায় প্রবল জলোচ্ছ্বাস ও ঝড়ো হাওয়া, জারি হল সর্তকতা

 

পুলিশ এসে  ওই যুবতীর পরিচয় জানার জন্য বিভিন্ন জায়গায় খবর পাঠায়। পরে জানা গেল রক্তাক্ত ওই যুবতী আসলে আমার দিদি। তার মৃতদেহ দেখে আমাদের মনে হয়েছে, তার সাথে জবরদস্তি করা হয়েছে। কারণ তার গলায় ওড়নার দাগ দেখা গিয়েছে। যাতে মনে হচ্ছে শ্বাসরোধ করে তাকে মারা হয়েছে।

 

পাশেই একটি ব্যাগ পড়েছিল। ওই যুবতীর একটি দাঁত ভাঙা অবস্থায় পাওয়া যায় এবং নাক থেকে রক্ত বেরোচ্ছিল। দীর্ঘক্ষণ জিআরপি এবং পুলিশ-এর মধ্যে কার এক্তিয়ারে ওই ঘটনা ঘটেছে তা নিয়ে বচসা শুরু হয়। পরে ঘটনাস্থল যাচাই করে থানাতেই মামলা দায়ের করা হয়, মৃত যুবতীর