চা বাগানের হাজার হাজার চা গাছ কেটে ফেললো দুস্কৃতীরা

বাগানের

চা বাগানের হাজার হাজার চা গাছ কেটে ফেললো দুস্কৃতীরা ।  চা বাগানের হাজার হাজার চা গাছ কেটে উপড়ে ফেলে দেয় দুস্কৃতীরা। ঘটনার জেরে এবং দুস্কৃতীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে সংশ্লিষ্ট চা বাগান বন্ধ করে দিল কর্তৃপক্ষ। ফলে কাজ হারালেন এলাকার কয়েকশো চা বাগিচা শ্রমিক। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়া থানার দাসপাড়া এলাকার ইচ্ছামতি চাবাগানে।

 

চা বাগান কর্তৃপক্ষের তরফে স্থানীয় দাসপাড়া পুলিশ ফাঁড়িতে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। চা বাগান কর্তৃপক্ষের দাবি দুস্কৃতীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যাবস্থা না করা পর্যন্ত চা বাগান বন্ধ রাখা হবে।এর আগেও একাধিকবার ফলন্ত চা বাগিচা থেকে চায়ের গাছ কেটে নিয়ে যাওয়া এবং উপরে ফেলে নষ্ট করে দেওয়া হয়েছিল।

 

স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের কাছে অভিযোগ জানানোর পরেও কোনও সুরাহা হয়নি। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতের অন্ধকারে একদল দুস্কৃতী চোপড়া ব্লকের দাসপাড়া গ্রামপঞ্চায়েতের ইচ্ছামতী চা বাগানের জিয়াগুড়ি ডিভিশনের ৭ নম্বর সেকশনের একটি চা বাগান থেকে কয়েক হাজার চায়ের গাছ কেটে নিয়ে যায়। কয়েক হাজার চায়ের গাছ উপরে ফেলেও নষ্ট করে দেয় দুস্কৃতীরা।

 

আর ও পড়ুন    বালুরঘাটে আত্রেয়ী নদীর জল বেড়েছে, ভাঙন দেখা দিয়েছে এলাকায়

 

শুক্রবার সকালে ইচ্ছামতী চা বাগিচায় চায়ের পাতা তুলতে এসে শ্রমিকেরা দেখেন চা বাগান একদম ফাঁকা। একটি চায়ের গাছও নেই। খবর দেওয়া হয় বাগান কর্তৃপক্ষকে। ইচ্ছামতী চা বাগানের জিয়াগুড়ি সেকশনের জুনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার জানিয়েছেন, দুস্কৃতীরা রাতের অন্ধকারে চা বাগানের সমস্ত গাছ কেটে নিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি হাজার হাজার চা গাছ উপরে ফেলে নষ্ট করে দিয়েছে।

 

বিষয়টি নিয়ে বহুবার পুলিশ প্রশাসনকে জানানো হয়েছে। আজ দাসপাড়া পুলিশ ফাঁড়িতে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। আমাদের দাবি যতক্ষন না পুলিশ দুস্কৃতীদের গ্রেপ্তার করছে ততক্ষন এই চা বাগান বন্ধ করে রাখা হবে। এই ঘটনার জেরে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।