কলকাতার চেতলায় বিধ্বংসী আগুন লাগলো

বিধ্বংসী

কলকাতার চেতলায় বিধ্বংসী আগুন লাগলো । কলকাতার চেতলায় বিধ্বংসী আগুন লাগার ঘটনা ঘটলো। শুক্রবার দুপুর ১টা নাগাদ চেতলার এক ঝুপড়িতে একটি ঘর থেকে আচমকাই কালো ধোঁয়া বের হতে দেখা যায়। মুহূর্তের মধ্যে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। তড়িঘড়ি খবর দেওয়া হয় দমকলে। ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছয় দমকদের চারটি ইঞ্জিন।

 

জানা গিয়েছে,   যুদ্ধকালীন তৎপরতায় আগুন নেভানোর কাজ শুরু করেন আধিকারিকেরা। এলাকা যথেষ্ঠ ঘিঞ্জি হওয়ায় আগুন নেভানোর ক্ষেত্রে যথেষ্ট বেগ পেতে হয় দমকল কর্মীদের। তবে কীভাবে আগুন লাগল তা এখনও জানা যায়নি। তবে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, গ্যাস সিলিন্ডার লিক করেই এই বিপত্তি ঘটেছে। বের করা হয় সিলিন্ডারটিও। ঘটনায় দুই শিশু-সহ চারজন ঝলসে গিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। প্রত্যেকেই এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

 

আর ও পড়ুন    বাক্স থেকে নামানোর তোড়জোড় শুরু করুন শীত পোশাক, আসছে শীত

 

অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে যান ফিরহাদ হাকিম। তাঁর তৎপরতায় আহতদের দ্রুত হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে‌। সম্প্রতি কলকাতার  নারকেলডাঙ্গা, সল্টলেক এবং নিউটাউনের ঝুপড়িতে আগুন লাগে। সেখানেও হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। কিন্তু চেতলায় দুই শিশুর এইভাবে ঝলসে যাওয়ার ঘটনায় স্বাভাবিকভাবেই আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে।

 

উল্লেখ্য, কলকাতার চেতলায় বিধ্বংসী আগুন লাগলো । কলকাতার চেতলায় বিধ্বংসী আগুন লাগার ঘটনা ঘটলো। শুক্রবার দুপুর ১টা নাগাদ চেতলার এক ঝুপড়িতে একটি ঘর থেকে আচমকাই কালো ধোঁয়া বের হতে দেখা যায়। মুহূর্তের মধ্যে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। তড়িঘড়ি খবর দেওয়া হয় দমকলে। ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছয় দমকদের চারটি ইঞ্জিন। জানা গিয়েছে,   যুদ্ধকালীন তৎপরতায় আগুন নেভানোর কাজ শুরু করেন আধিকারিকেরা। এলাকা যথেষ্ঠ ঘিঞ্জি হওয়ায় আগুন নেভানোর ক্ষেত্রে যথেষ্ট বেগ পেতে হয় দমকল কর্মীদের। তবে কীভাবে আগুন লাগল তা এখনও জানা যায়নি।

 

তবে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, গ্যাস সিলিন্ডার লিক করেই এই বিপত্তি ঘটেছে। বের করা হয় সিলিন্ডারটিও। ঘটনায় দুই শিশু-সহ চারজন ঝলসে গিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। প্রত্যেকেই এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।