ভারতের সবচেয়ে কম বয়সি মহিলা কুস্তিগির হিসেবে টোকিও অলিম্পিকে অংশ নিচ্ছেন সোনম

0
12

১৬ জুলাই ২০২১: ভারতের সবচেয়ে কম বয়সি মহিলা কুস্তিগির হিসেবে টোকিও অলিম্পিকে অংশ নিচ্ছেন সোনম। যদিও কিছু বছর আগে জীবন থেকে কুস্তি প্রায় বাদ হতে বসেছিল।

ঘাড়ে মারাত্মক ভাবে চোট পেয়েছিলেন সোনাম। তবে সেই চোট থেকে দ্রুত সেরে উঠে আবার ফর্ম এ ফিরেছেন সোনাম। মাত্র ১৯ বছর বয়স। টোকিও গেমসে ভারতকে পদকের আশা জোগাচ্ছেন জাতীয় গেমসে সোনাজয়ী ও গ্রিসের আথেন্স ওয়ার্ল্ড ক্যাডেট গেমসে সোনাজয়ী এই হরিয়ানার মেয়ে। টোকিও অলিম্পিকে মেয়েদের ৬২ কেজি বিভাগে অংশগ্রহণ করতে চলেছেন সোনম।ভারতের সবচেয়ে কম বয়সি মহিলা কুস্তিগির হিসেবে টোকিও অলিম্পিকে অংশ নিচ্ছেন সোনম। গত এপ্রিলে কাজাখাস্তানে হওয়া এশিয়ান অলিম্পিক কোয়ালিফায়ারের ফাইনালে পৌঁছেই টোকিওর টিকিট নিশ্চিত করে ফেলেন সোনম। ম্যাটে তাঁর লড়াই গোটা বিশ্বে চর্চা শুরু করে দেয়। কুস্তিমহলেও বেশ পরিচিত হয়ে ওঠেন তিনি।আজমের মালিকের তত্ত্বাবধানে নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু স্পোর্টস কমপ্লেক্সে প্রশিক্ষণ নিতে থাকেন সোনম। যখন সোনম স্নায়ুর রোগে ভুগছিলেন, সেইসময় ছ’মাস তাঁর জন্য ভীষণ কঠিন ছিল। এমনটাই বলছেন তাঁর কোচ। হরিয়ানার সোনপাতের মেয়ে সোনমের কোচ আজমের বলেন, “২০১৭ সালে সোনম যখন স্নায়ুর রোগে ভুগছিল, তখন ও হাত দিয়ে কোনও জিনিস ধরতে পারত না। শুধু তাই নয়, কিছু তুলতেও পারত না। ওর ডান হাত ও কাঁধ পুরো অসাড় হয়ে গিয়েছিল। চিকিৎসক তখন ওকে কুস্তির কথা ভুলে যেতে বলেছিলেন। বলেছিলেন ওই পরিস্থিতিতে কীভাবে ও বাঁচবে, সেটাই ভাবতে। তবে চিকিৎসক বলেছিলেন, সোনমের ভাগ্যে থাকলে ও সুস্থ হয়ে উঠবে।”৪ অগস্ট অলিম্পিকের ম্যাটে নামবেন সোনম। তার আগে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে সোনম বলছেন, “আমি জানি আমার বিভাগে প্রচুর প্রতিযোগিতা রয়েছে। আমিই জয়ের দাবিদার একমাত্র নই। তবে আমার দিনে যে কোনও সেরা খেলোয়াড় থাকলেও আমি তাঁকে হারাতে পারব। যদি কেউ আমাকে হাল্কাভাবে নেয়, সেটা তার জন্যই ক্ষতির হবে।” তিনি যোগ করেন, “আমি আমার পুরনো প্রতিযোগিতার ভিডিও ফুটেজগুলো দেখছি। সেই মতো মনের মধ্যে ছক কষে নিচ্ছি।”