সর্দি-গর্মি থেকে নিষ্কৃতি পেতে দারুণ টোটকা: চুটিয়ে প্রেম

%name সর্দি গর্মি থেকে নিষ্কৃতি পেতে দারুণ টোটকা: চুটিয়ে প্রেম

রায়া সাধুঃ কালের নিয়মে আবির্ভাব হলেও অসময়ে আবির্ভূত বর্ষারানী। তবে ভ্যাপসা গরমের দাপটটা রয়েই গেছে একপ্রকার। তাপমাত্রার পারদ ওঠা নামা করছে, আর বর্ষার জলে ঘরে ঘরে থাবা মারছে সর্দি, কাশি, জ্বর। তাই, বর্ষার জলে ভেজা স্যাঁতস্যাঁতে পরিবেশে ক্যালপল, প্যারাসিটামল, কফ সিরাপটা চাই-ই চাই। কিন্তু প্রেমের জোয়ারে যেন ভাঁটা না পড়ে। সেদিকে লক্ষ্য দিতে হবে। ভাঁটা পড়লেই খপাৎ করে ধরবে সর্দি-গর্মি। এমনটাই জানালেন বিশেষজ্ঞরা।

%name সর্দি গর্মি থেকে নিষ্কৃতি পেতে দারুণ টোটকা: চুটিয়ে প্রেম

তাঁদের গবেষণায় ধরা পড়েছে যে, প্রেম করলে শরীরের হরমোন গ্রন্থি থেকে যে সমস্ত হরমোন নিঃসৃত হয় তা শরীরের তাপমাত্রাকে বজায় রাখে। তার সাথে নির্দিষ্ট জিনকেও সক্রিয় করে তোলে। হঠাৎ করে ঠাণ্ডা লাগতে দেয়না।

%name সর্দি গর্মি থেকে নিষ্কৃতি পেতে দারুণ টোটকা: চুটিয়ে প্রেম
গবেষকরা এটাও জানিয়েছেন, প্রেম করলে শরীরের প্রতিরক্ষার ক্ষমতাও বেড়ে যায় অনেকগুণ। আর সর্দি-গর্মির ভাইরাসের সাথে মোকাবিলা করার ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। তাই গবেষকরা চুটিয়ে প্রেম করার পরামর্শ দিচ্ছেন, যাতে সর্দি জ্বর থাকে আপনার থেকে শতহস্ত দূরে। সর্দি কাশি নয় বরং দুরন্ত বর্ষাতেও লভেরিয়াতে মজে থাকুন লভবার্ডসরা।
তাই বলা যেতেই পারে,
“সর্দি কাশি না ম্যালেরিয়া হুয়া
ইয়ে গায়া ইয়ারো ইসকো
লভ লভ লভ
লভেরিয়া হুয়া, লভেরিয়া হুয়া, লভেরিয়া হুয়া…”