পূর্ব মেদিনীপুরের কালসাপ বলে কাকে বোঝালেন সায়নী ঘোষ?

সায়নী
সায়নী

পূর্ব মেদিনীপুরের কালসাপ বলে কাকে বোঝালেন সায়নী ঘোষ? । বিজেপি সেখানেই গিয়েই নির্বাচনে লড়বে , যেখানে তারা ধর্মের বিভেদ করতে পারবে ও রাজনীতি করতে পারবে। তাছাড়া যেখানে মানুষ রাজনৈতিক মনস্ক, যেখানে মানুষ বুদ্ধি ধরে, যেখানে মানুষ আবেগ নিয়ে চলে সেখানে বিজেপি গো হারা হারবে। যেমন তারা বা‌ংলায় হেরেছে পশ্চিমবঙ্গের মানুষ তাদের মুখে ঝামা ঘসে দিয়েছে।

 

কাঁথি সাংগঠনিক জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেসের ডাকে সোমবার ডরমিটরি মাঠে তৃণমূলের কর্মী সম্মেলন এসে ফের বিজেপিকে এমনই কটাক্ষ করলেন রাজ‍্য যুব কংগ্রেসের সভানেত্রী সায়নী ঘোষ। তিনি আরও বলেন, এই মাটি বীরের মাটি , এই মাটি বীরাঙ্গনার মাটি !

 

এখান থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সংগ্রাম শুরু হয়েছে। আর এই মাটিতেই তিনি দুধ কলা দিয়ে কালসাপ পুষেছেন। তাছাড়া বিজেপির বিভেদ ও মেরুকরণের রাজনীতির বিরুদ্ধে জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে দেশজুড়ে আন্দোলন-সংগ্রামে যুবসমাজ কে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

 

আর ও পড়ুন    ঝড়খালি ইকো ট্যুরিজমে বাঘ,কুমির কেমন আছে? দেখলেন এই বিধায়ক

 

অপরদিকে রাজ্য তৃণমূলের মুখপাত্র দেবাংশু ভট্টাচার্য বলেন, ভারতবর্ষের সব থেকে বড় ধাপ্পাবাজ আর ছাপ্পাবাজ হলেন শুভেন্দু অধিকারী। নন এমএলয়ে ৬ মাসের জন্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসতে পারে। কিন্তু হেরো বিধায়ক কখনো বিরোধী দলনেতা হতে পারে না। এটা লজ্জা।

 

নন্দীগ্রাম বিধানসভায় নির্বাচনের জয় নিয়ে আদালতে বিচার চলছে। কিছুদিনের মধ্যে শুভেন্দু বিধায়ক পদ খারিজ হয়ে যাবে সেই ভয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে নানা কথা বলে চলেছেন।

 

 

পাশাপাশি রাজ্য সরকারের মৎস্য মন্ত্রী অখিল গিরি জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়’কে কাঁথি ও এগরাপৌরসভা উপহার দিয়ে কাঁথি ও এগরা র উন্নয়নের জয়যাত্রাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার আবেদন জানান। সেই সঙ্গে জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি তরুণ মাইতি কাঁথি সাংগঠনিক জেলার দলীয় সংগঠন ও শাখা সংগঠন কে শক্তিশালী করার মাধ্যমে তৃণমূল কংগ্রেসের দুর্ভেদ্য দূর্গ গড়ে তোলার ডাক দেন।

 

পাশাপাশি জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূল কংগ্রেসের নয়নের মণি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে জাতীয় স্তরে মোদী সরকার রাজনৈতিক ভাবে উৎখাত করার আবেদন জানান জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কো-অডিনেটের মামুদ হোসেন।

 

এদিনের সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা চেয়ারম্যান অভিজিৎ দাস, অধ্যাপক জ্যোতির্ময় কর, অর্ধেন্দু মাইতি, বিধায়ক উত্তম বারিক, বিকাশ বেজ, কাজল বর্মন, প্রাক্তন বিধায়ক অমিয় ভট্টাচার্য, কাঁথি পৌর প্রশাসকমন্ডলীর চেয়ারপারসন হরিসাধন দাস অধিকারী সহ ১৪ টি ব্লক ও দুটি পুরসভার দলীয় ও যুব সংগঠন সহ সমস্ত শাখা সংগঠন সমূহের কর্মকর্তা গণ।