ভ্রাতৃত্বের নজির গড়ে ব্রাত্য জনেদের রাখীবন্ধন (Rakhibandhan)

Rakhibandhan
Rakhibandhan
b28d2441 bd09 4667 b3d8 46ba14cb2bda ভ্রাতৃত্বের নজির গড়ে  ব্রাত্য জনেদের রাখীবন্ধন (Rakhibandhan)
ছবি সংগ্রহে সাইন টিভি

 

সামাজিকভাবে আজও ব্রাত্য জনেদের হাতে সাধারণ মানুষের হাতে রাখী (Rakhibandhan) পরিয়ে তাদের সঙ্গে ভ্রাতৃত্বের  নজির গড়লেন ‘লিফ’ ফাউন্ডেশন। কাঁকিনাড়ার ভাটপাড়া পুরসভার ৩৪ নাম্বার ওয়ার্ডে অন্নদা ব্যানার্জি রোডে ধানকল মোড়ে অনারম্ভে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের নিয়ে একটি ছোট্ট অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। পথচারীদের রাখি পরানোর (Rakhibandhan) পাশাপাশি চলে মাস্ক বিতরন ও সচেতনতা শিবির।

 

এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় নেত্রী কল্পনা লাহিড়ী। এবং বৃহন্নলা গোষ্ঠীর ১০ জন সদস্য।
আমাদের জীবনে প্রতিযোগিতা ও দায়িত্ব সামলাতে গিয়ে কোথাও যেন নিজস্বতা ভুলে হতাশার হাতে নিজেদের সপে দিতে বাধ্য হচ্ছি। সব সময় ব্যর্থতার হিসেব করে চলেছি।

 

আর ও পড়ুন    রেলের বিরুদ্ধে বৃহৎ আন্দোলনের ডাক রেল হকারদের (Rail hawkers)

 

এক কথায় বলতে গেলে আমরা ‘সাইকোলজিকার ডিস অর্ডার ‘ রোগে আক্রান্ত। বিশ্বে বিভিন্ন দেশে সাধারণ মানুষকে এরকম অবস্থা থেকে মুক্ত করার প্রচেষ্টা ইতিমধ্যে স্বীকৃত। সংস্থার সদস্যরা সেরকম মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের যথাযথ ভাবে সেই অবস্থা থেকে বার করে আনার প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন।

 

ভ্রাতৃত্বের নজির গড়ে ব্রাত্য জনেদের রাখীবন্ধন (Rakhibandhan) স্বাভাবিকভাবেই যথেষ্ট সাড়া ফেলে দেয়। কিছুটা ব্যাতিক্রমী এই রাখীবন্ধন সমাজে যে ভ্রাতৃত্বের নজির গড়ে এই অন্যন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলো তা বলাই যায়।  সামাজিকভাবে আজও ব্রাত্য জনেদের হাতে সাধারণ মানুষের হাতে রাখী (Rakhibandhan) পরিয়ে তাদের সঙ্গে ভ্রাতৃত্বের  নজির গড়লেন ‘লিফ’ ফাউন্ডেশন।

 

কাঁকিনাড়ার ভাটপাড়া পুরসভার ৩৪ নাম্বার ওয়ার্ডে অন্নদা ব্যানার্জি রোডে ধানকল মোড়ে অনারম্ভে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের নিয়ে একটি ছোট্ট অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। পথচারীদের রাখি পরানোর (Rakhibandhan) পাশাপাশি চলে মাস্ক বিতরন ও সচেতনতা শিবির।

 

এক কথায় বলতে গেলে আমরা ‘সাইকোলজিকার ডিস অর্ডার ‘ রোগে আক্রান্ত। বিশ্বে বিভিন্ন দেশে সাধারণ মানুষকে এরকম অবস্থা থেকে মুক্ত করার প্রচেষ্টা ইতিমধ্যে স্বীকৃত। সংস্থার সদস্যরা সেরকম মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের যথাযথ ভাবে সেই অবস্থা থেকে বার করে আনার প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন। ক কথায় বলতে গেলে আমরা ‘সাইকোলজিকার ডিস অর্ডার ‘ রোগে আক্রান্ত।

 

বিশ্বে বিভিন্ন দেশে সাধারণ মানুষকে এরকম অবস্থা থেকে মুক্ত করার প্রচেষ্টা ইতিমধ্যে স্বীকৃত। সংস্থার সদস্যরা সেরকম মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের যথাযথ ভাবে সেই অবস্থা থেকে বার করে আনার প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন।