রামনগর সমবায় সপ্তাহ উদযাপন অনুষ্ঠান থেকে দল পরিবর্তনের জল্পনায় জল ঢেলে দিলেন পরিবহন মন্ত্রী।

0
2

নিজস্ব সংবাদদাতা,পূর্ব মেদিনীপুর:আমি এখনো মন্ত্রিসভার সদস্য, মুখ্যমন্ত্রী তাড়ায়নি। আমিও ছাড়িনি, পূর্ব মেদিনীপুর জেলার রামনগরে সপ্তাহ উদযাপন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে এমনই মন্তব্য করলেন পরিবহন মন্ত্রী তথা নন্দীগ্রামের বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী।

 

প্রসঙ্গত বেশ কয়েক মাস ধরে দলীয় কর্মসূচি সহ বিভিন্ন সরকারি অনুষ্ঠানে দেখা যায়নি পরিবহন মন্ত্রী কে, এই নিয়ে উঠেছিল রাজনৈতিক মহলে নানা জল্পনা। অন্যদিকে রাজনৈতিক মহলের একাংশের ধারণা ছিল শুভেন্দু অধিকারীর দল পরিবর্তন করার,যদিও এই প্রসঙ্গে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা তৃণমূলের জেলা সভাপতি শিশির অধিকারী কার্যত জল ঢেলে দিয়েছিলেন। তিনি এই বিষয়ে বলেছিলেন এখনো উনি মন্ত্রিসভার সদস্য, এইদিন সমবায় সপ্তাহ উদযাপন অনুষ্ঠান থেকে সেই বিষয় নিয়েই সুর শোনা গেল পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর মুখে, সমবায় সপ্তাহ উদযাপন অনুষ্ঠানের আগে ইন্দিরা গান্ধীর জন্মদিন উপলক্ষে তার প্রতীকী ছবিতে মাল্যদান করার সময় সংবাদমাধ্যমের একাধিক কর্মীরা ছবি তোলা বিষয় নিয়ে তিনি মন্তব্য করেন সমবায় মঞ্চ থেকে এইসব জিনিসগুলো করা যায় না আমি এখনো একটা দলের প্রাইমারি মেম্বার মানে সক্রিয় সদস্য, অন্যদিকে আমি একজন মন্ত্রিসভার সদস্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমাকে ছাড়েননি আমিও ছাড়ি নি, এমনই মন্তব্য করলেন পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। তিনি আরো বলেন সময়ে সময়ে অনেক মতবিরোধ হয়, যতক্ষণ আমি দলে আছি এবং মন্ত্রিসভায় আছি ততক্ষণ দলের হয়ে কাজ করতে হবে অর্থাৎ দল পরিবর্তন নিয়ে রাজনৈতিক মহলে যে জল্পনা উঠেছিল কার্যত তার অবসান ঘটালো পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। এই দিন এই সমবায় সপ্তাহ উদযাপন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তার অনুগামী অর্থাৎ পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর অনুগামীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন গার্গী মুখার্জি তিনি বলেন আমরা দাদাকে শ্রদ্ধা করি দাদার পাশেই আমরা সবসময় রয়েছি কারণ দাদা মানুষের জন্য যা করে তাতে আমরা আপ্লুত।

আরও পড়ুন…মালদহের সুজাপুরের একটি প্লাস্টিক কারখানায় ভয়াবহ আগুন মৃত ৫

অন্যদিকে রামনগর ১ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতি তথা ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি নিতাইচরণ সার বলেন আমরা জানি উনি এখনো মন্ত্রিসভার সদস্য তথা একজন সক্রিয় তৃণমূল কর্মী আমরা জানি চিরদিন উনি দলের হয়ে কাজ করবেন, এই বিষয় নিয়ে অপপ্রচার ছড়াচ্ছে।