মন্দিরে গিয়েছিলেন মধ্যবয়স্ক মহিলা , অমানবিক অত্যাচারের পর চলন্ত গাড়ি থেকে ছুড়ে ফেলা হয় রক্তাক্ত দেহ

0
15

নিউজ ডেস্ক ৬ জানুয়ারি ২০২১: প্রথমে ধর্ষণ তারপরে অত্যাচার এরকমই নানান নারকীয় ঘটনার কথা বার বার উঠে আসছে খবরের শিরোনামে তবুও খান্ত হচ্ছেন না ধর্ষকরা। ফের  নির্ভয়ার মত অমানবিক ঘটনা ঘটেছে  উত্তরপ্রদেশের উঘাইতি থানা এলাকার, বাদুয়ান জেলায়।

রবিবার বিকেল স্থানীয় এক মন্দিরে গিয়েছিলেন মহিলা কিন্তু তিনি আর ফিরে আসেননি৷ স্থানীয়রা জানিয়েছেন যে রাত ১২টার সময় একটি চলন্ত গাড়ি থেকে ছুড়ে ফেলা হয় রক্তাক্ত মহিলাকে৷ মধ্যরাতেই মৃত্যু হয় নিগৃহীতার৷ জানা গিয়েছে চরম অত্যাচারের পর মহিলাকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে গিয়েছিল অভিযুক্তরা৷ নিয়ে যাওয়া হয় চান্দৌসিতে৷ মৃতার আত্মীয়দের অভিযোগ স্থানীয় থানায় যোগাযোগ করা হলে কোনও পুলিশ আধিকারিক গুরুত্ব দেননি৷ কোনও পুলিশ আধিকারিক আসেননি অভিযোগ দায়ের করতে৷ ১৮ ঘণ্টা পর মৃতার দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়৷ ৩ সদস্যের চিকিৎসক দল তার ময়নাতদন্ত করেন৷ তার মধ্যে এক মহিলা চিকিৎসকও ছিলেন৷ ময়নাতদন্তের রিপোর্টে জানানো হয়েছে যে, মহিলার যৌনাঙ্গে প্রচুর ক্ষতচিহ্ন মিলেছে৷ বুকের পাঁজর ও পায়ের হাড় ভেঙেছে৷ এমনকী ফুসফুসেও ভারি বস্তু দিয়ে আঘাত করার চিহ্ন স্পষ্ট৷ যার ফলেও তার শরীর থেকে এত পরিমাণ রক্তক্ষরণ হয়েছে, বলে জানান চিকিৎসকরা৷ অবশেষে পুলিশ  গণধর্ষণ ও খুনের অভিযোগ দায়ের করেছে এবং অভিযুক্ত মহন্ত বাবা সত্যনারায়ণ, ভেদরাম এবং চালক জসপালের খোঁজ শুরু করেছে৷

আরও পড়ুন…ড্রাম ভর্তি তাজা বোমা উদ্ধার বীরভূমে